বিজয় একাত্তর হল
প্রভোস্টের নাম : ড. আবদুল বাছির
প্রভোস্টের এর ছবি

৫৯ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৯তম, মনোরম স্থাপত্যশৈলীতে নির্মিত এ হলটি শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নয়, দেশের যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে বৃহত্তম হল। হলটির অবস্থান মাস্টারদা সূর্যসেন হল এবং জিয়া হলের মাঝামাঝি স্থানে।

২০১৩ সালের ১৪ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই নতুন হল উদ্বোধন করেন। এই হল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টুইন-টাওয়ার ও অসাম্প্রদায়িক হল বলে খ্যাত। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে ও সকল সম্প্রদায়ের মানুষের আত্মোৎসর্গের কথা স্মরণ করে সবার জন্য এই হল উন্মুক্ত। ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ থেকে এই হলে সব ধর্মের ও বর্ণের ছাত্ররা থাকতে পারেন।

এ হলের তিনটি ব্লকের নাম বাংলাদেশের প্রধান ৩টি নদী যথাক্রমে পদ্মা, মেঘনা, যমুনা নামে নামকরণ করা হয়েছে। হলটিতে ছাত্রদের জন্য চারটি লিফট, একটি সুসজ্জিত গেস্টরুম, একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর, দুটি পাঠকক্ষ, একটি কম্পিউটার ল্যাব, একটি কাউন্সেলিং রুম, হল সংসদ কক্ষ (স্থাপিত ২০১৯), একটি সেলুন, একটি সুবিশাল হল অডিটোরিয়াম ও দূরদর্শন কক্ষ, বাঁধনের হল শাখার রুম, একটি ইনডোর গেমসরুম (বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বড় গণরুম নামে খ্যাত), একটি অত্যাধুনিক জিমনেশিয়াম, একটি পত্রিকা পাঠকক্ষ, একটি পাঠাগার ও একটি বিশাল মসজিদ রয়েছে। বর্তমানে এই হলের প্রাধ্যক্ষ ড. এ জে এম শফিউল আলম ভূইয়া ।

ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা
আবাসিক 500
দ্বৈতাবাসিক 300
অনাবাসিক 100
সর্বমোট 900
হাউজ টিউটরের তথ্য
আইডি নাম ক্যাটাগরি
2008116003 Abul Bashar Md. Omar Faruque প্রিন্সিপাল আবাসিক শিক্ষক
1997106003 Dr. Muhammad Yousuf সহকারী আবাসিক শিক্ষক
2002033008 Md. Asif Hossain Khan আবাসিক শিক্ষক
উল্লেখযোগ্য ছবি সমূহ:
Bijoy 71 Hall